শুক্রবার, ২০শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ,৩রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
Mujib

/ ,

, এর সর্বশেষ সংবাদ

রবিবার থেকে আদালতে যাবেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আইনজীবীরা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: অবশেষে আদালতে যাচ্ছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আইনজীবীরা। আগামী রোববার (১৫ জানুয়ারি) থেকে আদালতে যাবেন তারা। এক্ষেত্রে অপসারণ দাবি করা দুই বিচারকের আদালতে তাঁরা যাবেন না। 

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) রাতে রাজধানীতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের সঙ্গে বৈঠকের পর চলমান আদালত বর্জন কর্মসূচি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেন আইনজীবীরা। এর মধ্য দিয়ে আদালতে অচলাবস্থার অবসান হতে যাচ্ছে। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি তানভীর ভূঞা ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বাবুল কর্মসূচি প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

তাঁরা জানান, আইনজীবীদের তিনটি দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। এর প্রেক্ষিতে আগামী রবিবার থেকে আইনজীবীরা আদালতে যাবেন। তবে জেলা ও দায়রা জজ শারমিন নিগার এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মোহাম্মদ ফারুকের বদলির আগ পর্যন্ত তাদের আদালত বর্জন অব্যাহত থাকবে। এছাড়া নাজিরকে দ্রুত সময়ের মধ্যে বদলি করা হবে। আগামীকাল শনিবার আইনজীবী সমিতির সাধারণ সভা করে সকল আইনজীবীদের সঙ্গে আলোচনা করে আন্দোলন প্রত্যাহারের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা, সাড়ে নয়টায় আইনমন্ত্রীর বাসভবনে বৈঠকে বসেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দরা। রাত ১১টা পর্যন্ত চলা এ বৈঠকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি মমতাজ উদ্দিন ফকির এবং সাধারণ সম্পাদক আবদুন নূর দুলালও উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে নিজেদের দাবির কথা পুনরায় তুলে ধরেন আইনজীবীরা। 

আদালতের একাধিক সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মামলা দায়েরকে কেন্দ্র করে আইনজীবী সমিতির নেতাসহ একাধিক আইনজীবীর সঙ্গে নারী-শিশু নির্যাতন দমন-১ আদালতের বিচারকের সাথে বিতন্ডা হয়। এরই জেরে বিচারকের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে ক্ষিপ্ত হন আইনজীবীরা। এ ঘটনায় গত ২৬ ডিসেম্বর সভা করে ১ জানুয়ারি থেকে সংশ্লিষ্ট আদালত বর্জনের সিদ্ধান্ত নেয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আইনজীবী সমিতি। পরবর্তীতে জেলা জজ, নারী-শিশু আদালতের বিচারকের অপসারণ ও জেলা জজ আদালতের নাজিরের বিচারের দাবিতে গত ৫ জানুয়ারি থেকে আগামী ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত আদালত বর্জনের ঘোষণা দেয় আইনজীবী সমিতি। এদিকে, বিচারকের সাথে আইনজীবী সমিতির সভাপতি সহ তিন আইনজীবী অসৌজন্যমূলক আচরণের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। এরপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট আগামী ১৭ জানুয়ারি জেলা আইনজীবী সমিতি সভাপতি সহ ৩ আইনজীবীকে সমন ও শোকজ করেছে। এছাড়াও, আন্দোলন চলাকালে জেলা জজের বিরুদ্ধে অশালীন স্লোগান দেওয়ায় গতকাল বুধবার (১১ জানুয়ারি) হাইকোর্টে ২১জন আইনজীবীকে আগামী ২৩ জানুয়ারি তলব করা হয়েছে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on tumblr
Tumblr
Share on telegram
Telegram

, বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published.

যায়যায়কাল এর সর্বশেষ সংবাদ