শুক্রবার, ২০শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ,৩রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
Mujib

/

এর সর্বশেষ সংবাদ

গোপালগঞ্জে ২ কোটি ২৮ লাখ টাকার চিকিৎসা সহায়তা প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদক: গোপালগঞ্জে ক্যান্সারসহ জটিল রোগে আক্রান্তরা গত বছর পেয়েছেন ২ কোটি ২৮ লাখ টাকার চিকিৎসা সহায়তা। জেলার ৫ উপজেলার ক্যান্সার, জন্মগত হৃদরোগ, কিডনী রোগ , লিবার সিরোসিস,স্ট্রোকে প্যারালাইসিস ও থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত ৪৫৬ জন রোগীকে এ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। প্রত্যেক রোগীকে ৫০ হাজার টাকা করে চিকিৎসা সহায়তা দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা জটিল রোগের চিকিৎসায় জন প্রতি  ৫০ হাজার টাকার আর্থিক সহায়তা প্রবর্তন করেন। সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে  সমাজসেবা অধিদপ্তর এ চিকিৎসা সহায়তার টাকা প্রদান করে আসছে।
সমাজসেবা অধিদপ্তরের গোপালগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোঃ হারুন অর রশীদ বলেন, গত বছর আমরা জটিল রোগে আক্রান্ত ৪৫৬ জনকে ২ কোটি ২৮ লাখ টাকার চিকিৎসা সহায়তা দিয়েছে। এরমধ্যে ২৩৮ জন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগী, ৫১ জন কিডনী রোগী, ২৪ জন লিবার সিরোসিসে আক্রান্ত রোগী, ৮৯ জন স্ট্রোক প্যারালাইসিসে আক্রান্ত রোগী, ৪০ জন জন্মগত হৃদরোগে আক্রান্ত রোগী ও ১৪ জন থ্যালাসেমিয়া রেগে আক্রান্ত রোগী রয়েছে। আমরা প্রত্যেক রোগীর ব্যাংক হিসেবে এ টাকা আনলাইনে প্রদান করেছি।  এ টাকা পেতে তাদের কোন টাকা খরচ করতে হয়নি। এমনকি কোন প্রকার হয়রানী ছাড়াই রোগীরা এ টাকা পেয়েছেন। আমরা স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে এ টাকা বিতরণ করেছি। এ টাকা পেয়ে জটিল রোগে আক্রান্ত রোগীরা উপকৃত হয়েছেন। তারা চিকিৎসার পেছনে এ টাকা ব্যয় করেছেন। 
কিডনী রোগে আক্রান্ত টুঙ্গিপাড়া উপজেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামের কাজী আনিসুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমাজসেবার মাধ্যমে আমাকে কিডনী রোগের চিকিৎসায় ৫০ হাজার টাকা দিয়েছেন। এ টাকা পেয়ে আমি চিকিৎসা করাতে পেরেছি। এ জন্য আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।  সমাজসেবা অধিদপ্তরে আবেদন করার পর কোন রকম ঝামেলা ও হয়রানি ছাড়াই আমি ঘরে বসে এটাকা পেয়েছি। আমরা ব্যাংক একাউন্টে এ টাকা দেওয়া হয়েছে। এ টাকা পেতে আমাকে কোন টাকা খরচ করতে হয়নি। এ জন্য গোপালগঞ্জ সমাজসেবা অধিদপ্তরকে ধন্যবাদ জানাই।
কোটালীপাড়া উপজেলার বাগান উত্তরপাড় গ্রামের রঞ্জিতা রুদ্র বলেন, আমার স্বামী পংকজ কুমার গাইন ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। চিকিৎসার জন্য সমাজ সেবায় আবেদন করি। সমাজসেবা সহজের আমার ব্যাংক একাউন্টে ৫০ হাজার টাকার চিকিৎসা সহায়তা দিয়েছে। এ টাকা দিয়ে আমার স্বামীর কেমো দিয়েছি। টাকা তার চিকিৎসায় ব্যয় হয়েছে। আমার স্বামী ক্যান্সারের কাছে হার মেনে মৃত্যু বরণ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের এ টাকা দিয়ে সহায়তা করেছেন। তার প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞ। 
কাশিয়ানী উপজেলার খায়েরহাট গ্রামের গৃহবধূ জান্নাতুল তাহেরা বলেন, আমার কন্যা তানিশা তানহা জন্মগত হৃদরোগে আক্রান্ত হয়। তার বর্তমান বয়স ৫ বছর। ঢাকায় ডা. মিজানুর রহমান তার চিকিৎসা করছেন। সমাজসেবা থেকে ৫০ হাজার টাকার চিকিৎসা সহায়তা পেয়েছি। এ টাকা পেয়ে মেয়েকে চিকিৎসা করাচ্ছি। এখন তার অবস্থা আগের চেয়ে অনেক ভালো। সরকার প্রধান শেখ হাসিনা সমাজসেবার মাধ্যমে আমাদের ৫০ হাজার টাকা দিয়েছেন। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই। তার অনুদানের টাকায় আমার মেয়ে সুস্থ জীবনে ফিরছে। তাই নামাজ পড়ে প্রতিদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া-মনোজাত করি। আল্লাহ যেন তাকে সুস্থ রাখেন। 

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on tumblr
Tumblr
Share on telegram
Telegram

বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published.

যায়যায়কাল এর সর্বশেষ সংবাদ